জাহাজ বিধ্বংসী তুরস্কের ভয়ঙ্কর ক্ষেপণাস্ত্র 'আটমাকা’

তুরস্কের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি জাহাজ বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ‘আটমাকা। দূরপাল্লার এই ক্ষেপণাস্ত্রটি টার্গেটে নির্ভুল আঘাত হানতে সক্ষম। এটি তুরষ্কের নৌ বাহিনীকে অত্যাধুনিক সেবা দেয়ার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত ।
জাহাজ বিধ্বংসী তুরস্কের ভয়ঙ্কর ক্ষেপণাস্ত্র 'আটমাকা'
ক্ষেপণাস্ত্র আটমাকা। ছবি: সংগৃহীত
 
চলুন জেনে নিই ক্ষেপণাস্ত্র 'আটমাকা’ সম্পর্কে কিছু তথ্য

👉 আটমাকা ক্ষেপণাস্ত্রটি তৈরি করেছে তুর্কি প্রতিরক্ষা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান রকেটসান।

👉 এই অ্যান্টি শিপ মিসাইলটি ২০০৯ সালে প্রথম তৈরির ঘোষণা দেয়া হয় এবং ২০১৮ সালের নভেম্বরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা সম্পন্ন হয়। চুড়ান্ত ও সর্বশেষ পরীক্ষা ২০২০ সালের ১ জুলাই সম্পন্ন হয়।

👉 দূরপাল্লার এ ক্ষেপণাস্ত্রটি ২২০ কিলোমিটারের বেশি দূরত্বের লক্ষ্যবস্তুতে সফলভাবে আঘাত হানতে সক্ষম।

👉 ‘আটমাকা’ মিসাইলটি যে কোন আবহাওয়ায় ব্যবহার যোগ্য

👉 এটি স্থির বা চলমান টার্গেটের বিরুদ্ধেও কার্যকর।

👉 হামলার পাশাপাশি প্রতিপক্ষের হামলা প্রতিরোধেও কার্যকর এই মিসাইল।

👉 টার্গেটের বিষয়ে হালনাগাদ থাকা, পাল্টা হামলা, হামলা বাতিলের সক্ষমতাসহ এই মিসাইলটিতে ত্রিমাত্রিক রাউটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে।

👉 ক্ষেপণাস্ত্রটি নিক্ষেপের পরেও এর ত্রিমাত্রিক রাউটিং সিস্টেমের জন্য এটি যে কোনো সময় এর লক্ষ্য পরিবর্তন করতে পারে।

👉 ক্ষেপণাস্ত্রটির একটি বড় বিশেষত্য হলো এটি বৈদ্যুতিক জ্যামিংয়ের বিরুদ্ধে অত্যন্ত কার্যকরী।

Related

Featured 1024680933415946071

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

emo-but-icon

সাম্প্রতিক

মন্তব্য

সংরক্ষাণাগার

ফ্যানপেজ

item